স্বামী ‘নিখোঁজ’ তিস্তায়, বাড়িতে অপেক্ষায় অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী

শিলিগুড়ি,১১ জুলাই,শুভঙ্কর পালঃ মাত্র ৮ মাস হয়েছিল বিয়ের৷ সদ্য স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা শোনার পর থেকে পরিবারে ছিল আনন্দের আমেজ।
এরইমধ্যে নিজের মোবাইল দোকান থাকায় এক মোবাইল প্রস্তুতকারক কোম্পানির তরফে সিকিম ঘুরতে যাওয়ার প্যাকেজ উপহার স্বরূপ পেয়েছিলেন রাজস্থানের কোটার বাসিন্দা গৌরব শর্মা। কিন্তু অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিয়ে পাহাড়ে যাওয়া ঠিক হবেনা ভেবেই দুই বন্ধু অমন গর্গ ও গোপাল নারওয়ানীর সঙ্গে সিকিম ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যানিং সেরেছিলেন।


সেইমতো মঙ্গলবার রাজস্থান থেকে দিল্লীতে যান। এরপর সেখান থেকে বুধবার বিমানে আসেন বাগডোগরায়। গাড়িতে সিকিমের উদ্দেশ্যে রওনা দেন সকলে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টা ৪৫ মিনিট নাগাদ ভাই আকাশ শর্মার সঙ্গে ফোনে কথাও হয় গৌরবের৷ এরপরই ১২ টা ১৫ মিনিট নাগাদ সেবক ফাঁড়িতে খবর যায় তিস্তায় পর্যটক নিয়ে পড়ে গিয়েছে একটি গাড়ি। পুলিশ, এনডিআরএফ সকলেই আসে।

পরিবার তখনও আশায় সিকিম পৌঁছে ফোন আসবে গৌরবের। ফোনও গেল। কিন্তু পুলিশের। জানানো হয় গাড়ি তিস্তায় পড়ে গিয়েছে। কিছুই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। শুধু একটি ট্রলি ব্যাগ পাওয়া গিয়েছে। ট্রলি ব্যাগের ছবি দেখে পরিবার জানায় সেটি গৌরবের। খবর পাওয়ার পর থেকেই আকাশ ভেঙে পড়ে ৩ পরিবারের মাথায়।


বৃহস্পতিবার ৩ জনের পরিবার এসে পৌঁছায় সেবক। বুধবার ঘটনাস্থলে ছিল নিখোঁজ গাড়ি চালকের পরিবার। বৃহস্পতিবার দিনভর করনেশন ব্রিজের উপর থেকেই ঘন ঘন তিস্তায় তল্লাশি অভিযানে নজর রাখছিলেন গৌরব, গোপাল ও অমনের পরিবার। এদিকে সকলের চোখ দিয়েই জল গড়িয়ে পড়ছে। গৌরবের ভাই আকাশ শর্মা বলেন, ‘কয়েকমাস আগেই দাদার বিয়ে হয়েছে। বৌদি অন্তঃসত্ত্বা। ঘটনার খবর পেয়েই ছুটে আসি৷ কিন্তু এখানে এসে সহযোগীতা পাচ্ছিনা কিছুই’।

তবে এদিন গৌরবদের সন্ধানে সন্ধ্যা অবধি তল্লাশি চালায় এনডিআরএফ। কিন্তু গভীর ও বর্ষায় ভয়ঙ্কর রূপী তিস্তায় গাড়ি খুঁজে বের করা যাবে কিনা তা নিয়ে চিন্তায় সকলেই। শুক্রবার সকালে ফের তল্লাশি চালানো হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site is protected by reCAPTCHA and the Google Privacy Policy and Terms of Service apply.