স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে চিকিৎসা না পেয়ে বৃদ্ধের মৃত্যুর অভিযোগ, বিজেপি নেতারা হাজির-কথা বলেনি পরিবার

শিলিগুড়ি, ১৫ জানুয়ারিঃ অভিযোগ, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থাকা সত্ত্বেও শিলিগুড়ির বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা না পেয়ে মঙ্গলবার মৃত্যু হয় এক বৃদ্ধের।আজ মৃতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যান বিজেপির শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি প্রবীণ আগরওয়াল।তবে বিজেপির নেতৃত্বদের সঙ্গে কথা বলতে চাননি মৃতের পরিবার।


প্রসঙ্গত, মাটিগাড়া সংলগ্ন প্রমোদনগর এলাকার বাসিন্দা মহম্মদ গফফরের ব্রেন স্ট্রোক হয়।গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখান থেকে নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন চিকিৎসকেরা।পরিবারের অভিযোগ, এরপর স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে শিলিগুড়ির বিভিন্ন নার্সিংহোমে যান তারা।তবে কোনো নার্সিংহোম স্বাস্থ্যসাথী কার্ড দেখে চিকিৎসা করাতে চায়নি।এরপর কোনো সহায়তা না পেয়ে অসহায় হয়ে বৃদ্ধকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসে পরিবার।মঙ্গলবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

এই ঘটনার পর আজ বিজেপির শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি প্রবীণ আগরওয়াল, যুব সভাপতি কাঞ্চন দেবনাথ, মাটিগাড়ার বিজেপি নেতা আনন্দ বর্মন সহ বিজেপির একাধিক কার্যকর্তারা মৃতের বাড়িতে যান।মৃতের স্ত্রী’র সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন কার্যকর্তারা কিন্তু মৃতের স্ত্রী এই বিষয়ে কোনো কথা বলতে চাননি।


এদিকে মৃতের পরিবারকে সবরকমভাবে সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন প্রবীণ আগরওয়াল।   সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে প্রবীণ আগরওয়াল বলেন, ‘রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প শুধুমাত্র একটি প্রতারণা।এই কার্ডের কোনো অস্তিত্ব নেই।শিলিগুড়ির কোনো নার্সিংহোম এই কার্ডকে মানছে না।গরীব মানুষদের এভাবে ধোকা দেওয়া হচ্ছে’।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site is protected by reCAPTCHA and the Google Privacy Policy and Terms of Service apply.