গজলডোবা ভোরের আলোতে অনুষ্ঠিত হল বেঙ্গল হিমালয়ান কার্নিভাল

রাজগঞ্জ, ৭ ফেব্রুয়ারিঃহিমালয়ান হসপিটালিটি অ্যান্ড ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট নেটওয়ার্ক এর পরিচালনায় তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হল বেঙ্গল হিমালয়ান কার্নিভাল।শুক্রবার দার্জিলিং, শনিবার কালিম্পংয়ের পর রবিবার অনুষ্ঠিত হল গজলডোবা ভোরের আলোতে।


এই উৎসবে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উত্তরবঙ্গের পর্যটনচিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি পর্যটনের উন্নয়নমূলক দিকগুলি সম্পর্কে অবগত করা হয়।

এইচএইচটিডিএন এর উপদেষ্টা রাজ বসু বলেন, এই রাজ্যের পূর্ব থেকে পশ্চিম-উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্র পর্যটনের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে।উত্তরবঙ্গে পাহাড় ও ডুয়ার্সের পাশাপাশি অনেকটা অংশ জুড়ে রয়েছে হিমালয় পর্বত।এই বিষয়টি দেশ তথা পৃথিবীর মানুষের কাছে তুলে ধরতে উত্তরবঙ্গ থেকে বেঙ্গল হিমালয়ান কার্নিভাল শুরু করা হল।


পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, উত্তরবঙ্গ সহ গোটা রাজ্যে পর্যটনের উন্নয়নে প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে তেমন সহযোগিতা পাওয়া যাচ্ছে না।করোনার অতিমারিতে আইটি সেক্টর থেকে বেশি ক্ষতি হয়েছে পর্যটন শিল্পে।রাজ্য সরকার তার সীমিত ক্ষমতার মধ্যেও অবিরাম পর্যটনের উন্নয়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।আমরা চাই পর্যটনের উন্নয়নের স্বার্থে কেন্দ্রীয় সরকার তার বাজেট রিভিউ করে পর্যটনের উন্নয়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করুন এবং পর্যটনের সঙ্গে যুক্ত বিদ্যুৎ, পরিবহন সহ বিভিন্ন বিষয়ে সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা ও কেন্দ্রীয় সরকারের কর মুক্ত করা হোক।

এদিনের কার্নিভালে উপস্থিত ছিলেন জলপাইগুড়ির জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু, গজলডোবা ডেভেলপমেন্ট অথরিটির ভাইস চেয়ারম্যান তথা বিধায়ক খগেশ্বর রায়, বনদপ্তরের পার্কস অ্যান্ড গার্ডেন বিভাগের উত্তরবঙ্গের ডিএফও অঞ্জন গুহ, মালবাজারের মহকুমাশাসক সান্তনু বালা, সিআইআই এর চেয়ারম্যান সঞ্জয় টিব্রুয়াল প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site is protected by reCAPTCHA and the Google Privacy Policy and Terms of Service apply.