‘গিন্নি বিশ্বকর্মার ময়নাতদন্তের রিপোর্টে ধর্ষণের উল্লেখ নেই’, সাংবাদিক বৈঠক করে জানালেন জিআরপি এসপি জসপ্রীত সিং

শিলিগুড়ি, ১০ ফেব্রুয়ারিঃ গিন্নি বিশ্বকর্মার রহস্যমৃত্যুর পর্দা ফাঁস করল জিআরপি।বুধবার রাতে শিলিগুড়ির এয়ারভিউ মোড়ে জিআরপি কার্যালয়ে এসপি জসপ্রীত সিং সাংবাদিক বৈঠক করে গোটা বিষয়টি জানান।গিনি বিশ্বকর্মা হত্যাকান্ডে গ্রেফতার করা হয়েছে এক যুবককে।গ্রেফতার যুবক গোপাল রায় গিন্নি বিশ্বকর্মার প্রেমিক বলে জানা গিয়েছে।


উল্লেখ্য, গত ২৫ জানুয়ারি জলপাইগুড়ি জেলার অন্তর্গত মালবাজার ব্লকের মানাবাড়ি চা বাগানের বাসিন্দা ১৬ বছর বয়সী গিন্নি বিশ্বকর্মা এক আত্মীয়ের বিয়েতে যাওয়ার জন্য বের হয়। বিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হলেও সেখানে পৌঁছাতে পারেননি সে।এরপর রেললাইনের উপর থেকে তার ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার হয়।এরপর থেকেই আশঙ্কা করা হচ্ছিল গিন্নিকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে।এদিকে ঘটনার পর থেকেই উপযুক্ত বিচারের দাবি তোলেন তরাই ডুয়ার্স এর মানুষেরা।    

ঘটনার পর  ২৮ জানুয়ারি গিন্নি বিশ্বকর্মার পরিবারের সদস্যরা সন্দেহভাজন এক যুবকের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করে।এরপরই ওই যুবক গোপাল রায়কে গ্রেফতার করে আদালতে পেশ করে তিনদিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়।


এদিকে ঘটনার তদন্তকারী জিআরপির এসপি জসপ্রীত সিং গতকাল রাতে একটি সাংবাদিক বৈঠক করে গিন্নি বিশ্বকর্মার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেশ করেন।যেখানে গিন্নি বিশ্বকর্মা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তার কোনো উল্লেখ নেই।বরং ময়নাতদন্ত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে ট্রেনের ধাক্কায় গিন্নির মৃত্যু হয়েছে।গিন্নি বিশ্বকর্মা ও অভিযুক্ত গোপাল রাইয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল।তবে ঘটনার সময় অভিযুক্ত যুবক ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিল না।তিনি আরও বলেন, গিন্নি বিশ্বকর্মা আত্মহত্যা করেছে নাকি তাকে খুন করা হয়েছে? তা তদন্তের পর স্পষ্ট হবে।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site is protected by reCAPTCHA and the Google Privacy Policy and Terms of Service apply.