তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ, আক্রান্ত সাংবাদিকেরাও

রাজগঞ্জ, ২৩ জুলাইঃ তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ।খবর করতে গিয়ে আক্রান্ত হলেন সাংবাদিকেরা।শুক্রবার তৃণমূল পরিচালিত রাজগঞ্জের সুখানি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানকে দলের এসসি এসটি ওবিসি সেলের তরফে স্মারকলিপি জমা দিতে যায়।প্রচুর তৃণমূল কর্মী-সমর্থক দলীয় ঝান্ডা নিয়ে মিছিল করে গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয়ে পৌঁছান।কিন্তু তাঁদেরকে কার্যালয়ে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।ঘটনাকে কেন্দ্র করে দলের দুই গোষ্ঠীর হাতাহাতি হয়।অভিযোগ, সেসময়  ৭ জন সাংবাদিককে মারধর করে কয়েকজন কর্মী।সাংবাদিকরা রাজগঞ্জ গ্রামীণ হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা করান।সাংবাদিকদের তরফে বিষয়টি নিয়ে আপাতত রাজগঞ্জ থানার আইসি পঙ্কজ সরকারের কাছে মৌখিক অভিযোগ করা হয়েছে ।


তৃণমূলের এসসি এসটি ওবিসি সেলের রাজগঞ্জ ব্লকের কার্যকরি সভাপতি পূর্ণচন্দ্র রায় বলেন, গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান সম্পা দত্ত ১০০ দিনের কাজে অনিয়ম করছেন।দলের কর্মীদের আন্দোলন করে ১০০ দিনের কাজ নিতে হচ্ছে।প্রত্যেক জব কার্ডধারিকে ১০০ দিনের কাজ, অবৈধ জবকার্ড বাতিল করে নতুন কার্ড দেওয়ার দাবি এবং আবাস যোজনার ঘরের তালিকা প্রকাশ্যে টাঙানোর দাবি সহ কয়েকটি দাবি নিয়ে গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয়ে যাওয়া হয়েছিল।কিন্তু আমাদেরকে কার্যালয়ে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।এমনকী আমাদের উপর হামলা করার পাশাপাশি সাংবাদিকদেরও মারধর করা হয়।এটা খুবই নিন্দনীয়।ঘটনাটি নিয়ে থানায় অভিযোগ করা হবে।

জলপাইগুড়ি জেলার তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সহসভাপতি শেখ ওমর ফারুক বলেন, স্মারকলিপি দেওয়ার ব্যাপারে আগাম জানায়নি।এছাড়া যারা স্মারকলিপি দিতে এসেছিল তারা তৃণমূল করেনা।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site is protected by reCAPTCHA and the Google Privacy Policy and Terms of Service apply.